ধ্বংস (চতুর্থ পর্ব)

কিন্তু তা আর হলো কোথায়। রোজ রোজ নেশা করে ছেলেটার চেহারার দীকে তাকানো যায় না। মনে হয় যেন চেহারাটা একটা মরুভূমি। চেহারার মধ্যে দুনিয়ার সমস্ত জঞ্জাল, সমস্ত রোগ, ব্যাথা বেদনা দুঃখ, জীর্ণতা রয়েছে যেন চেহারা নয় একটা ডাস্টবিন । রাস্তায় যদি একটি পাগলের পাশে দাড়ায় তাহলে তার আর পাগলের মধ্যে কোনো পার্থক্য থাকবে না। বরং পাগলকে তার চাইতেও উৎকৃষ্ট মনে হবে। সে যেন এই দুনিয়ার সবচাইতে নিকৃষ্ট লোক। দেখে তাকে একটা রোগী বলে মনে হয়। অথচ তার রোজকার কান্ডকারখানা দেখলে তাকে একটা মানসিক রোগী বললে খুব একটা ভুল হবে না। তার কোনো পরিচিত বা নিকটাত্মীয় তাকে দেখলেই ভয় পাই। অগত্যা প্রয়োজন না হলে তার সাথে কথা বলে না। অথচ এই পারভেজ তো এমন ছিল না। কী সুন্দর তার চেহারা ছিল দেখলেই চোখ জুড়িয়ে যেতো। আর ছোটবেলায় কী আদুরে ছিল তার চেহারাটা আর তার স্বভাবও ছিল তেমন। কোনো নিকটাত্মীয়ের বাড়ি গেলে কেউ তাকে কোল থেকে নামাতে চাইত না।

Amitabh chakraborty.

আমিএকজনলেখ। গল্পলেখা আমারকাজ।

Leave a Reply