ভালো ছাত্র হওয়ার কৌশল

অধ্যবসায় সফলতার মূল চাবিকাঠি।কেননা, অধ্যবসার মাধ্যমেই মানুষ তার অভিষ্ট লক্ষ্যে পোঁছে। শিশুকাল থেকেই আমাদের এই অভ্য্যাস রপ্ত করতে হয়। তবেই সফলতা দোর ঘরে কড়া নাড়ে । সংস্কৃতে আছে- ছাত্র নং অধ্যায় নং তপঃ। আজ দেখে নিব কিভাবে ভাল ছাত্র হওয়া যায়। নতুন কোনো মায়েদের যদি এই পোস্টটি কিঞ্চিত কাজে লাগে তবে তা হাতে খড়ি থেকে শুরু করা যাকঃ—

১। স্পষ্ট ও শুদ্ধ উচ্চারণ;হাতের লেখাকে আকর্ষণীয় করা যার জন্য ডট পদ্ধতি দিয়ে শুরু করা,

মাত্রার যথার্থ ব্যবহার।

২।আমাদেরকে দ্ব্যর্থহীন কন্ঠে বলতে আপত্তি নেই, হাতে গোনা ২/১জন ছাড়া কেউ মেধাহীন নয় । একথা মাথায় রেখে সবাইকে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে যার নাম সাধনা।

৩। এক্ষেত্রে অভিভাবকের ভূমিকাই অগ্রগণ্য।কোনও কারণে এতে সমস্যা থাকলে গৃহশিক্ষকের শরনাপন্ন হওয়া জরুরী । এদিক থেকে আমাদের অনেক বেশি মনোযোগ জরুরী।আমরা এক্ষে্ত্রে যদি প্রতিদিনের বিষয় প্রতিদিন বুঝে নিই তাহলে মুক্ত-স্বাধীন। সপ্তাহে নামমাত্র ১/২দিন  দেখাশুনা করলে আমাদের সন্তানেরা আরও বেশি পিছানো রয়ে যাবে। সত্যিকার অর্থে, একজন অভিভাবকই পারেন, ছাত্র শিক্ষকের মধ্যে সেতু বন্ধন তৈরি করতে।

৪।পড়া তৈরি করা  অর্থাৎ পড়াটাকে মজাদার করে তোলা,পড়ার ব্যাপারে উতসাহিত করা একটু বড় শিক্ষার্থী হলে পড়া বা শিক্ষার উপকারিতা বুঝিয়ে বলা।

৫।পড়ার উপযুক্ত নিরব পরিবেশ তৈরি করা ।টেবিল-চেয়ারে পড়ার সঅভ্যাস গঠন। ছোট ছোট ভুলগুললো প্রাথমিক পর্যায়ে সারিয়ে তোলা।

৬। পড়ার পাশাপাশি পর্যাপ্ত লেখার অভ্যাস গড়া। বুঝে পড়া । অধৈর্য না হয়ে  বার বার অনুশীলন করা।

৭।প্রতিদিন একই সময়ে  বার বার না উঠে  একটানা  বা অল্পবিরতি রেখে অনুশীলন।

৮।সঠিক বন্ধু নির্বাচন যা ভাল একটা অবস্থান তৈরিতে সহায়ক।

৯। শারিরিক ও মানসিক  সুস্থতা ।যেহেতু একটি অপরটির পরিপুরক।

১০। কঠিন বিষয় পড়া শেষে লিখে ফেলা।

১১।রুটিন করে পড়া ,বছরের শুরুথেকে  এই ব্যাপারে সচেতন থাকা অর্থাৎ সময়ের সদ্ব্যবহার করা.

১২।কোনো পাঠকে ভয়  না করা ।কারন ভয়ই হতাশা ডেকে আনে।

১৩। বাসা ব্যতিরেকে প্রথম ও প্রধান শিক্ষার যে ক্ষেত্র  বিদ্যালয়। তার সুস্থ পরিবেশ , অতিরিক্ত পড়ার চাপ থেকে বিরত।আদর্শ শিক্ষকের সাহচর্য ,শিক্ষকের সুকৌশল,ছাত্র- শিক্ষক সম্পর্ক যা একটা ছাত্রকে ভাল ছাত্র তৈরিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

আমরা বোধ হয় এই পদক্ষেপগুলো মেনে চললে খুব একটা সমস্যার সম্মুখীন হব না।

 

সকলের মঙ্গল কামনা করে এইখানে যবনিকাপাত করছি। আবারও ইনশা আল্লাহ দেখা হবে  নতুন কোনো বিষয় নিয়ে।

অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য ক্ষমা প্রার্থী।

 

Hasina Chowdhury

I am a teacher from Dhaka. Completed B.A. B.Ed. from National University and Advanced Course o Research Methodology from University of Dhaka. I love to study,discuss and write on different topics.

৪ thoughts on “ভালো ছাত্র হওয়ার কৌশল

  • মার্চ ৫, ২০১৯ at ১০:০৮ পূর্বাহ্ণ
    Permalink

    সিরিয়াল মিসটেক হয়েছে । এটা ঠিক করে দিলেই পোস্টটি আরো সুন্দর হয়ে উঠবে

  • মার্চ ৫, ২০১৯ at ১২:৪৮ অপরাহ্ণ
    Permalink

    সংক্ষিপ্তভাবে বিষয়বস্তুর মূল্ভাবটা বুঝে মনে রাখাই উচিত। তাই সিরিয়ালের উপর অতটা গুরুত্ব দিইনি। মতামতের জন্য ধন্যবাদ

  • মার্চ ৫, ২০১৯ at ৬:০০ অপরাহ্ণ
    Permalink

    খুব ভালো লেখেছেন। আপনার লেখা থেকে অনেক কিছু জানতে পারলাম।

Leave a Reply